প্রখ্যাত বংশীবাদক ও গায়ক বারী সিদ্দিকীর সুরে প্রকাশ হলো তার কন্যা এলমা সিদ্দিকীর দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘আত্মাদেবী’।

শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় জাতীয় জাদুঘরের সিনেপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হলো এলমা সিদ্দিকীর দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘আত্মাদেবী’র প্রকাশনা অনুষ্ঠান। এতে থাকছে পাঁচটি মৌলিক গান। এতে দেলোয়ার আরজুদা শরফের কথায় চারটি গানের সুর করেছেন প্রয়াত বারী সিদ্দিকী। একটি গানের সুর এলমার। সবগুলো গানের সংগীতায়োজন করেছেন মুশফিক লিটু।

প্রয়াত বাবার স্পর্শ থাকছে কন্যার গানুগুলোতে। গানগুলোতে বারী সিদ্দিকীর স্মৃতি জীবন্ত রাখতে বাংলাঢোল নিয়েছে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। তার সুর করা গানগুলোর ডেমোতে ছিলো তারই কণ্ঠ। এলমার গানগুলোর শুরুতে থাকছে বাবার সেই কণ্ঠ। অন্যদিকে এলমার একক ভার্সনেও থাকছে গানগুলো। বারী সিদ্দিকীর সুর করা গানগুলো হলো- ‘ভালোবাসি বলে’, ‘পিপীলিকার ঘর’, ‘আত্মাদেবী’ ও ‘মানুষ ছাড়া কে পারে’। অন্যদিকে এলমার সুরারোপিত গানটির নাম ‘পরানে খুঁজি’।

‘আত্মাদেবী’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এলমাকে শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিলেন জনপ্রিয় গীতিকবি ও বারী সিদ্দিকীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু, শহীদুল্লাহ ফরায়েজী, এলমার মা ও আত্মীয়-স্বজনসহ অনেকেই। এতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাঢোল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনামুল হক, ই.বি সল্যুশন্স লিমিটেডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

নতুন অ্যালবাম প্রসঙ্গে এলমা বলেন, “কথা ছিলো আব্বু আমার জন্য কিছু গান সুর করবেন। তিনি সেই সময় পাননি। এই গানগুলো তিনি নিজের জন্যই করেছিলেন। যে কারণে এটি স্বপ্নের মতো লাগছে আমার কাছে। এটি আব্বুরই অ্যালবাম, আমার নয়। আমার সন্তুষ্টি এখানে যে, আব্বুর সুর করা গানগুলোর পাশাপাশি আমিও নিজের সুরের একটি গান রেখেছি। এ কারণেই দাবি করতে পারছি, এটি আমারও অ্যালবাম।”

শহীদুল্লাহ ফরায়েজী বলেন, “সংগীতে এলমা বাবার মতোই নিজস্ব ঘরানা তৈরি করবেন, এটিই প্রত্যাশা। এতেই তার বাবার আত্মা শান্তি পাবে।”

বাংলাঢোলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনামুল হক বলেন, “এলমার কণ্ঠ দারুণ। আমরা শুরু থেকেই তার সঙ্গে আছি। তিনি আরও ভালো ভালো গান উপহার দিয়ে আমাদের সংগীতকে সমৃদ্ধ করবেন বলেই বিশ্বাস করি।”

এর আগে এলমার অভিষেক অ্যালবাম ‘ভালোবাসার পরে’ বের করেছিলো বাংলাঢোল। ‘আত্মাদেবী’র গানগুলো বাংলাঢোলের ইউটিউব চ্যানেলের পাশাপাশি থাকছে দেশের জনপ্রিয় স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম বাংলাফ্লিক্স, রবিস্ক্রিন, এয়ারটেলস্ক্রিন ও টেলিফ্লিক্সে। এ ছাড়া গানগুলো শোনা যাবে ২৪৬৪৬ নম্বরে ডায়াল করে।

সূত্র – বিডিনিউজ২৪