একাডেমি অ্যাওয়ার্ডে ছয়বার মনোনয়ন পাওয়া কোনো অভিনেত্রীর জন্য চাট্টিখানি কথা নয়। হলিউড তারকা কেট উইন্সলেটের সেই অভিজ্ঞতা আছে। এর মধ্যে একবার তিনি সেরা অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার জিতেছেন। ‘টাইটানিক’ ছবিতে রোজের চরিত্রে অভিনয় করে জায়গা করে নিয়েছেন অসংখ্য দর্শক আর সমালোচকদের মনে। ২০ বছর পর আবার সেই ছবির পরিচালক জেমস ক্যামেরনের ‘অ্যাভাটার টু’ ছবিতে কাজ করছেন। নতুন ছবি নিয়ে ভীষণ রোমাঞ্চিত কেট। আজ ৫ অক্টোবর এই তারকার ৪২তম জন্মদিন। সেরা রূপবতীদের তালিকায় কেটের নাম শুরুর দিকে থাকলেও একসময় তাঁকে নিয়ে খুব হাসাহাসি হতো। কারণ তাঁর স্বাস্থ্য। নায়িকা হওয়ার আগ পর্যন্ত অনেক মোটা ছিলেন কেট। তাই স্কুলে তাঁকে নিয়ে সবাই ঠাট্টা করত। জন্মদিনে এই তারকা সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য জেনে নিন।

  • মাত্র ১০ বছর বয়সে ইংল্যান্ডের রেডরুফস ড্রামা স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেওয়া হয় কেট উইন্সলেটকে। তখন থেকে এই নায়িকার অভিনয় শেখা শুরু। আর ওই সময়ে অভিনয়টা খুব ভালো রপ্ত করেছেন তিনি। এর জন্য ঝুলিতে উঠেছে অস্কার, বাফটা, গোল্ডেন গ্লোবের মতো পুরস্কার।
  • কেট প্রথম ব্যাপক পরিচিতি পান জেমস ক্যামেরনের ‘টাইটানিক’ ছবি দিয়ে। কিন্তু এই নায়িকার শুরুটা কিন্তু শিশুশিল্পী হিসেবে। ১১ বছর বয়সে একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে প্রথম কাজ করেন কেট। এর ছয় বছর পর টেলিভিশন সিরিজ ‘অ্যাংলো স্যাক্সোন অ্যাটিটিউডস’-এ দেখা যায় তাঁকে।

* ‘টাইটানিক’ ছবির রোজ চরিত্রে অভিনয়ের পর কেট উইন্সলেটের ক্যারিয়ারের গ্রাফ পুরো পাল্টে যায়। পরিচালক জেমস ক্যামেরনের কাছে এই নায়িকা তাই আজীবন কৃতজ্ঞ। রোজের চরিত্রে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর ধন্যবাদ জানিয়ে ক্যামেরনের বাড়িতে একটি উপহারের ঝুড়ি পাঠিয়েছিলেন কেট। কী ছিল সেই ঝুড়িতে? রোজ, মানে গোলাপ।

  • ‘টাইটানিক’ ছবিতে কেটকে লাল চুলে দেখা গেলেও এটি কিন্তু এই তারকার আসল চুল নয়। কেটের চুলের আসল রং স্ট্রবেরি ব্লন্ড।
  • চরিত্রের প্রয়োজনে ১৫টি ছবিতে নগ্ন হতে হয়েছে কেট উইন্সলেটকে। কেট একবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, গল্পের প্রয়োজনে গায়ের কাপড় খুলতে তাঁর কোনো সমস্যা নেই। নিজের শরীর দেখাতেও কোনো অস্বস্তি বোধ করেন না তিনি। তাহলে নগ্নতাকে ভালোবাসেন কেট?

  • জনপ্রিয় সিনেমা ‘লর্ড অব দ্য রিংস: দ্য টু টাওয়ারস’-এ রাজকুমারীর চরিত্রে অভিনয়ের কথা ছিল কেট উইন্সলেটের। কিন্তু পিটার জ্যাকসনের প্রস্তাবটি পরে ফিরিয়ে দেন কেট। এরপর মিরান্ডা অটোকে নেওয়া হয় সেই চরিত্রে।

  • ২০০৯ সালে ‘দ্য রিডার’ ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জেতেন কেট। এটিই তাঁর প্রথম আর এখন পর্যন্ত একমাত্র অস্কার। আর তিনি কিনা এটি রেখে দিয়েছিলেন তাঁর স্নানঘরে। বাইরে থাকলে কেউ এটি চুরি করে নিয়ে যেতে পারে, এই ভয়ে।

  • নিজের চরিত্রে অভিনয় করেও পুরস্কার জিতেছেন কেট উইন্সলেট। ২০০৬ সালে টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘এক্ট্রাস’-এ নিজের চরিত্রের ব্যঙ্গাত্মক সংস্করণে অভিনয় করে এমি পুরস্কার ঝুলিতে তুলেছিলেন তিনি।

  • সোর্স – মুভি পাইলট / প্রথম আলো